২ লাখ মানুষের যাতায়াতে চরম দূর্ভোগ দুই দশকেও সংস্কার হয়নি বাঘাবাড়ি-বেড়া মুজিব বাঁধ

0
105
জহুরুল ইসলাম,শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ শাহজাদপুর উপজেলার বাঘাবাড়ি রামখারুয়া গ্রাম থেকে পাবনার বেড়া উপজেলার আমাইকোলা বাজার বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত প্রায় ৫ কিলোমিটার মুজিববাঁধের সংস্কার কাজ দীর্ঘ ৩৭ বছরের মধ্যেও করা হয়নি। ফলে বাঁধটির দুপাশের মাটি ও সিসি ব্লক ধসে বহু স্থানে বড় বড় খানা খন্দ ও গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। অপরদিকে, দুই হাজার সালে বাঁধটিতে শেষ বারের মতো সংস্কার কাজ করে এর উপর পাকা সড়ক নির্মাণ করা হয়। এতে বাঁধটির স্থায়ীত্ব বৃদ্ধির পাশাপাশি এলাকার মানুষের যাতায়াত ব্যবস্থা সহজ ও উন্নততর  হয় । এরপর দীর্ঘ ২০ বছর পাড় হায়ে গেলেও এ সড়কটির সংস্কার করা হয়নি। ফলে সড়কটির অধিকাংশ স্থানে পিচ, খোয়া ও পাথর উঠে গিয়ে যানবাহন ও মানুষ চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এতে সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর এবং পাবনা জেলার বেড়া ও সাথিয়া উপজেলার ১৪টি গ্রামের কমপক্ষে ২লাখ মানুষের যাতায়াতে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এ ব্যাপারে আমাইকোলা গ্রামের ৭৫ উর্ধ্ব বয়োবৃদ্ধ আজমত আলী খাঁ জানান, পাবনা সেচ ও পল্লী উন্নয়ন প্রকল্পের (আইআরডি) আওতায় ১৯৮০ সালে এ বাঁধটি নির্মাণ করে মুজিব বাঁধ নির্মাণ করা হয়। এ বাঁধ নির্মাণের ফলে পাবনা ও সিরাজগঞ্জ জেলার বেড়া, সাথিয়া ও ফরিদপুর উপজেলার ৪৫ হাজার হেক্টর এক বা দুই ফসলী জমি তিন ফসলী জমিতে পরিণত হয়। ফলে এ এলাকা হতদরিদ্র কৃষকেরা বছরে তিন ফসল আবাদ করে স্বচ্ছল হয়ে ওঠে। এতে এলাকার মানুষের ব্যাপক অর্থনৈতিক উন্নয়ন ঘটে। এরপর অতি বন্যা ও বৃষ্টিপাতের ফলে বাঁধটি চরম ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে পড়লে দুই হাজার সালে তা সংস্কার করে তার উপরে পাকা সড়ক নির্মাণ করা হয়। এরপর আর এ বাঁধটি সংস্কার করা হয়নি। রূপবাটি স্বাস্থ্য কেন্দ্রের একজন চিকিৎসক নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, এ সড়কের এমন বেহাল অবস্থার কারণে হাসপাতালে রোগীরা যেতে পারে না। ফলে তারা সু-চিকিৎসা থেকে প্রায়ই বঞ্চিত হচ্ছে। চয়ড়া গ্রামের মুদি দোকানদার নান্নু মিয়া জানান, এ বাঁধটি সংষ্কার কাজ না হওয়ায় প্রতিদিন এ সড়কে যানবাহন চলাচলে দূর্ঘটনা ঘটছে। এতে অনেক ব্যাক্তির প্রাণ হাড়িয়েছে, বহু সংখ্যক মানুষ পঙ্গুত্ব বরণ করেছে। এ ব্যাপারে রূপবাটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম সিকদার বলেন, দুগ্ধ ও শিল্প প্রধান এ এলাকার মানুষের চলাচল ও পণ্য পরিবহনের একমাত্র ভরসা এই বাঁধ ও সড়ক । এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন শত শত লিটার দুধ ও অন্যান্য মালামাল পরিবহন করা হয়।সড়কটি এ এলাকার মানুষের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন হওয়ায় দ্রুত সময়ের মধ্যে এ বাধ ও সড়কটির সংস্কার প্রয়োজন।
এ ব্যাপারে বেড়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আব্দুল হামিদ জানান, এ বছরেই ২১ কোটি টাকা ব্যায়ে মুজিব বাঁধের সংস্কার কাজ শুরু হবে।###
       # জহুরুল ইসলাম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here