শেষ পর্যন্ত চাউল চোর চেয়ারম্যান এর ছেলে গ্রেপ্তার

0
90

মোঃ দীন ইসলাম : চেয়ারম্যানের করোনা ভাইরাস এর সাহায্যের চাল চুরির অনুসন্ধান করায় সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালায়, চেয়ারম্যান এর ছেলে নিজে ঐ সন্ত্রাসীদের নেতৃত্ব দিয়েছিল। আজ থানা পুলিশ চেয়ারম্যানের ছেলে নাবিল কে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করে। ডব্লিউ নিউজের সম্পাদক সাগর চৌধরীর উপর বোরহান উদ্দিন বড় মানিকা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন হায়দারের ছোট ছেলে নাবিল বড়দিন রাজমনি সিনেমা হলের সামনে মারধর করে। ঘটনা সম্পর্কে সাগর চৌধুরী জানায়, তাকে নাবিল ফোন করে বাসা থেকে বড়দিন রাজমনি সিনেমার কাছে নিয়ে-ই মারধর শুরু করে। এমনকি নাবিল তার মোবাইল দিয়ে লাইভ করে বলে আমি নাকি তার মোবাইল নিয়েছি। নাবিল একই থানার লোক। তার বাবা ক্ষমতাসীন দলের পোস্টে আছে বলে তারা এলাকায় মানুষকে মানুষ মনে করে না। সাগর জানায়, “ইউনিয়নের জেলেদের ১ মণ করে চাল দেওয়ার কথা, কিন্তু চাল দেওয়া হচ্ছে মাত্র ১৪-১৫ কেজি করে। বিষয়টা আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানাই এবং চেয়ারম্যানকে জিগ্যেস করি কেন চাল কম দিচ্ছেন? এজন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বসির গাজি এবিষয়ে চেয়ারম্যানকে জিগ্যেস করে। যেকারণে বোরহানউদ্দিন বড় মানিকা ইউনিয়ন পরিষদের (ভোলা) চেয়ারম্যান জসিমউদ্দিন হায়দারের ছেলে নাবিল হায়দার আজকে আমাকে ডেকে নেয় দেখা করার জন্য। এরপর ভিপি নুরের হত্যার হুমকির ভিডিও দেখিয়ে বলে, আমি ভিপি নুরকে গুনিনা, আর তুমি তো কোথাকার সাংবাদিক। একথা বলতে বলতে আমাকে প্রচন্ড রকম মারধর করে এবং মোবাইল ছিনতাইকারী হিসেবে অপবাদ দেয়।” সাগর চৌধুরীর উপর সন্ত্রাসী হামলায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন ও বাংলাদেশ অনলাইন প্রেসক্লাব সহ অন্যান্য সাংবাদিক সংগঠন। তারা এই ঘটনার মূলহোতা নাবিল সহ তার সন্ত্রাসী বাহিনীকে অবিলম্বে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছেন।