ভোলার চরফ্যাশনে  খাস জমিতে অবৈধ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নির্মাণে  সড়ক দূর্ঘটনার আশংকা, উচ্ছেদের দাবী এলাকাবাসীর

0
417
স্টাফ রিপোর্টার : চরফ্যাশন উপজেলার এওয়াজপুর ও হাজারীগঞ্জ সীমান্তবর্তী খাল দখল করে ইমামগঞ্জ বাজারের একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। এতে সড়কের সৌন্দর্য বিনষ্ট করার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় বাজার ব্যবসায়ী ও এলাকার পথচারীগন এই খাস জমির উপর নির্মিত ঘরটি সরানোর জন্যে জেলা প্রশাসক, ভোলা, চরফ্যাশন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর কাছে অভিযোগ দাখিল করেছেন।
অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, চরফ্যাশন উপজেলার কাশেমগঞ্জ বাজার হয়ে বাশিরদোন বাজার পর্যন্ত জমাদার সড়কের ইমামগঞ্জ নামক বাজারের উপর দিয়ে সড়ক নির্মিত হচ্ছে। দক্ষিণ মাদ্রাজ মৌজার ৯৫ জে.এল নং এর ডিয়ারা ১ নং খাস খতিয়ানে ১০৬১ দাগে শ্রেণি রাস্তা ও ১১১০ দাগে শ্রেণি খাল রয়েছে। এলাকার মিলন বেপারী নামক জনৈক ব্যক্তি একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খাস জমির উপর উত্তোলন করে বসে আছে। জনগনের দাবীর মুখে ওই স্থান দিয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এলজিইডির মাধ্যমে একটি পাঁকা সড়ক নির্মাণের কাজ চলমান রয়েছে। ওই সড়কের সামনে ঘর ও ঘরের পেছনে রয়েছে ব্রীজ। ঘরটি উত্তোলন বা সরানো হলে সড়কটি বরাবর সোজা গিয়ে ব্রীজের সাথে মিলিত হত। কিন্তু একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ঘরের পুরো বাজারের সৌন্দর্য বিনষ্ট করছে বলে দাবী এলাকাবাসীর। আবার অবৈধ দখলের কারণে বাকাঁ পথে দুর্ঘটনার আশংকাও রয়েছে।
স্থানীয় ইমামগঞ্জ বাজারের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম ও সম্পাদক মোস্তফা বলেন, খাস খতিয়ানের সড়কটির উপর নির্মিত ঘরটি উঠিয়ে নেয়ার জন্যে আমরা জেলা প্রশাসক, ভোলা, চরফ্যাশন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার ভূমির কাছে পৃথক পৃথক লিখিত ভাবে অভিযোগ দায়ের করেছি। খাস খতিয়ানের ঘরটি উঠিয়ে দেয়ার জন্যে প্রশাসনের কাছে দাবী জানচ্ছি।
সহকারী কমিশনার (ভূমি), চরফ্যাশন মোঃ শাহীন মাহমুদ হাজারীগঞ্জ ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোঃ আবুল কাশেমকে বিষয়টি সরেজমিনে দেখার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন। তিনি বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটি সরকারি খাস জমির উপর অবস্থিত মর্মে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন এবং উক্ত স্থাপনা অবৈধ হওয়ায় জনস্বার্থে দ্রæত অপসারণ করার সুপারিশ প্রদান করেন।
হাজারীগঞ্জ ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তার তদন্ত প্রতিবেদনের আলোকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রুহুল আমিন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) কে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য বলেন।
এতকিছুর পরও অবৈধ স্থাপনাটি ওই স্থানে বহাল তবিয়তে থাকায় এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তারা দ্রæত উপজেলা নির্বাহী অফিসারের এ আদেশ বাস্তবায়নের দাবী জানান।
Attachments area

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here