ভারতের বিরুদ্ধে আরেকটা মুক্তিযুদ্ধের জন্য আমরা প্রস্তুত: মাওলানা আউয়াল

0
79

ওয়ারদে রহমানঃ   নারায়ণগঞ্জ ওলামা পরিষদের সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ জেলা হেফাজতে ইসলামের আমির মাওলানা আব্দুল আউয়াল বলেন, মোদি একটি ব্যক্তি নয়। মোদি হল সারাবিশ্বের মুসলমানদের দুশমন। যে ফেরাউন বর্তমান জমানায় সারাবিশ্বের মুসলমানদের নিধন করার জন্য আন্দোলনে নেমেছে। আমরা বাংলার জনতারা দেখায় দিতে চাচ্ছি আরেকটা মুক্তিযুদ্ধের জন্য আমরা প্রস্তুত। ভারত দখল করে তারা মনে করেছে ভারত তাদের। নিজেদের তাজা রক্ত দিয়ে মুসলমানরা ভারতের বিরুদ্ধে আবার মুক্তিযুদ্ধে নেমে যাবে।
শুক্রবার (৬ মার্চ) জুমার নামাজের পর নারায়ণগঞ্জ শহরের ডিআইটি এলাকায় নারায়ণগঞ্জ ওলামা পরিষদের ব্যানারে মুজিববর্ষে নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফর বাতিলের দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশে এই কথা বলেন তিনি। শহরের বিভিন্ন মসজিদের কয়েকশ মুসুল্লী এতে অংশগ্রহণ
করেন। প্রায় ঘন্টাব্যাপী এ সমাবেশের কারণে বঙ্গবন্ধু সড়কের এক পাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কুশপুত্তলিকায় জুতাপেটা করে মুসুল্লীরা।
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন নারায়ণগঞ্জ ওলামা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা জাকির হোসেন কাসেমী, যুগ্ম সম্পাদক মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান, মহানগর খেলাফত মজলিসের সভাপতি ডা. শরীফ মো. মোসাদ্দেক, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সভাপতি মাসুম বিল্লাহ প্রমুখ।
প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে নারায়ণগঞ্জ ওলামা পরিষদের সভাপতি মাওলানা আব্দুল আউয়াল বলেন, আমাদের এই আন্দোলন কে আপনার মন্ত্রী পরিষদ বলতেছে এটি সাম্প্রদায়িক আন্দোলন। এটা কোন সাম্প্রদায়িক আন্দোলন নয়। এখানের সবাই শুধু তাদের ভাইদের রক্তকে মেনে নিতে পারছে না তাই তারা রাজপথে। কেন আপনার মন্ত্রীগুলি এরকম উস্কানিমূলক কথা বলে জনগণের মনকে ব্যথিত করতেছে। যদি সরকার তাদের সিদ্ধান্তের প্রতি অনড় থাকে তাহলে হেফাজতের মত দেশের পাচটি পয়েন্টে জমায়েত হয়ে ঢাকাকে অচল করে দেবো। দেখি সরকার বাহাদুর তোমাদের কামানে কত গুলি আছে আর আমাদের বুকে কত রক্ত আছে।
তিনি বলেন, আমরা বিভিন্ন সময় শুনি আপনি কোরআন, নামাজ পড়েন। ভারতে আপনার সেই মুসলমান ভাই-বোনেরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। আপনি কোরআন, তাহাজ্জুদ পড়নেওয়ালা প্রধানমন্ত্রী। আপনার মনে কি তাদের জন্য মায়া লাগে না। এই কাজটা যে করতেছে তাকে আপনি প্রধান অতিথি বানিয়ে নিয়ে আসতেছেন ব্যাপারটা কি? ভারত আপনার ক্ষমতা টিকিয়ে রাখবে তাই তো। আপনি পারবেন আপনাদের ক্ষমতার জোরে। জনগণের উপরে বন্দুকের নল রেখে পুলিশ বাহিনীকে দিয়ে টিয়ার গ্যাস ও অস্ত্র ব্যবহার করে আমাদের প্রতিহত করতে পারবেন কিন্তু উপরওয়ালা এটাকে কেন্দ্র করে আপনার মসনদকে ধূলিসাৎ করে দিতে পারবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here