থানচিতে শান্তিচুক্তির ২২তম বার্ষিকী উদযাপিত

0
97

সাথোয়াই প্রু মারমা, থানচি (বান্দরবান) প্রতিনিধি :  আজ ০২ ডিসেম্বর’১৯ সোমবার বান্দনরবানে থানচিতে ৩৮-বিজিবি’র বলিপাড়া জোন সার্বিক ব্যবস্থাপনায় জোন সদরসহ অধীনস্থ সকল বিওপি/ক্যাম্প দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় শান্তিচুক্তি স্বাক্ষরের ২২তম বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়েছে।
এ দিবস উপলক্ষে বলিপাড়া জোনের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় স্থানীয় পাহাড়ী বাঙ্গালী সর্বস্তরে জনসাধারণ অংশগ্রহনের মাধ্যমে সকাল ৮.০০ টায় বণার্ঢ্য শান্তি র‍্যালি বাজার এলাকার হতে শুরু করে গুরুত্বপূর্ন স্থান প্রদক্ষিণ করে জোন সদরে এসে শেষ হয়। আর অন্যদিকে সকাল থেকে মেডিক্যাল ফ্রি ক্যাম্পেইন সর্বসাধারণের জন্য উমুক্ত ভাবে দিন ব্যাপি চিকিৎসা ব্যবস্থা আয়োজন করেছে জোন কতৃপক্ষ।


তারপর ৩৮ বিজিবি’র বলিপাড়া জোন কমান্ডার লে: কর্ণেল মুহাম্মাদ সানবীর হাসান মজুমদার সভাপতিত্বে সর্বসাধারণের অংশগ্রহনের মাধ্যমে বিশাল এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, থানচি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, থোয়াইহ্লামং মারমা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ৩৮ বিজিবি’র বলিপাড়া জোন উপ-অধিনায়ক, মেজর মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, থানচি কলেজের অধ্যক্ষ, ধমিনিক ত্রিপুরা, থানচি সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, মাংসার ম্রো, রেমাক্রি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, মুইশৈথুই মারমা ও বলিপাড়া ইউনিয়নের সাবেক  ইউপি চেয়ারম্যান, বাশৈচিং মারমা, ৩৬১নং থাইক্ষ্যং মৌজার হেডম্যান, মংপ্রু মারমা সহ থানচি প্রেসক্লাবের সাংবাদিক, থানচি থানা ওসি প্রতিনিধি, মেম্বার, এলাকার কারবারী, শিক্ষক, ব্যবসায়ী, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং থানচি উপজেলার বিভিন্ন সম্প্রদায়ের জনসাধারণগণ উপস্থিত ছিলেন।
সভার প্রধান অতিথি ও সভাপতি, উপস্থিত পাহাড়ী ও বাঙ্গালীদের উদ্দেশ্যে পার্বত্য শান্তিচুক্তির ২২তম বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে শান্তিচুক্তির পটভুমি, চুক্তির সফলতা, চুক্তি বাস্তবায়নের অগ্রগতি, সরকারের পার্বত্য অঞ্চলের ভবিষ্যত উন্নয়ন পরিকল্পনা এবং বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে আলোকপাত করেন। পরিশেষে জোন কমান্ডার পার্বত্য অঞ্চলে শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখার জন্য উপস্থিত সকলকে আহ্বান জানান।
এরপর বিকাল ৩ টায় জোন কর্তৃক আয়োজিত থানচি যুব একাদ্বশ বনাম বলিপাড়া যুব একাদ্বশ মধ্যকার এক প্রীতি ফুটবল ম্যাচ জোন সদর মাঠে অনুষ্ঠিত হয় এবং বিজয়ী ও বিজিত খেলোয়াড়দের মাঝে জোন কমান্ডার পুরস্কার বিতরণ করেন।
সন্ধ্যায় ফানুস উত্তোলনের মাধ্যমে বলিবাজার প্রাঙ্গনে উৎসবমুখর পরিবেশে চলচিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here