তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চরফ্যাশন আহাম্মদপুরে গৃহবধুকে ধর্ষনের ঘটনায় থানায় এজাহার দায়ের

0
110
স্টাফ রিপোর্টারঃ চরফ্যাশন আহাম্মদপুর ৯নং ওয়ার্ডে ঘাস কাটাকে কেন্দ্র করে জোরপূর্বক গৃহবধুকে ধর্ষনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় দুলারহাট থানায় গৃহবধুর স্বামী আরিফ বাদী হয়ে ৫ জনকে বিবাদী করে এজাহার দায়ের করেন। অভিযুক্তরা হলেন- নজরুল (২৬), বাবু (২৮), বাচ্চু (২৯), লিটন (২৪), জুয়েল (২২)।
এজাহার ও ধর্ষিতার স্বামী বাদী আরিফ জানায়, অভিযুক্ত জুয়েল বাদী আরিফের মামা শাহাদাত এর জমিতে ঘাস কাটতে যায়। শাহাদাত, জাহাঙ্গীর ও সুফিয়াকে ঘাস কাটতে নিষেধ করলে জাহাঙ্গীরের সাথে জুয়েলের তর্ক-বিতর্ক হয় এবং একপর্যায়ে হাতাহাতিতে রুপ নেয়। স্থানীয় উপস্থিত লোকজন তাদের মধ্যকার বিরোধ নিষ্পত্তি করে দেয়। পরবর্তীতে গত ২৫ জুলাই দুপুর ১২টায় বাদী আরিফের গৃহবধু রুপা ও তার বোন রিপা অভিযুক্তদের বাড়ির সামনে দিয়ে আসার সময় অভিযুক্ত নজরুল তাদেরকে কোন কারণ ছাড়াই অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ ও অনৈতিক প্রস্তাব দিতে থাকে। গৃহবধু রুপা তার এমন কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করলে নজরুল গৃহবধুকে পাজাকোলে করে জোরপূর্বক তার বসত ঘরের পূর্ব পাশের বারান্দার খাটের উপর নিয়ে যায়। তারপর অন্যান্য অভিযুক্তরা এসে গৃহবধুর হাত পা খাটের সাথে বেধে ফেলে এবং মুখে কাপড় দিয়ে বেধে ফেলে জোর পূর্বক ধর্ষন ও শ্লীলতাহানি ঘটায়। গৃহবধু ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে মুখের বাধন খুলে চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন জড়ো হয় এবং অভিযুক্তরা দ্রæত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। আশেপাশের লোকজন গৃহবধুকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসলে তার স্বামী বাদী আরিফ তাকে চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
এ ঘটনায় দুলারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ ইকবাল হোসেন বলেন, ঘটনার বিষয়ে থানায় গৃহবধুর স্বামী বাদী হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। আমি গৃহবধুকে আহত অবস্থায় দেখেছি, ধর্ষনের ব্যপারে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
অভিযুক্তদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তাদেরকে এলাকায় পাওয়া যায়নি।