চরফ্যাশন দুলার হাট থানার নীলকমল যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে মারধর

0
50

মোঃআলাউদ্দিন ঘরামীঃ  ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলার দুলারহাট থানার নীলকমল ইউনিয়নে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে বেধরক মারধরের অভিযোগ পাওয়া যায় যৌতুক লোভী স্বামীর বিরুদ্ধে।

জানা যায় ০৫/০৬/২০১৯ ইং রোজ বুধবার পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন আনুমানিক দুপুর ১ টার নীলকমল চরনুরুল আমিন গ্রামের ২ নং ওয়ার্ড ফরাজি বাড়ীরতে এই ঘটনা ঘটে। ফরাজি বাড়ীর মোঃ ইব্রাহিম মনির (২৫)ত এর সাথে আজ প্রাই ২ বছর আগে বিপাশা (১৯) সাথে বিয়ে হয়। একটি সুত্র জানায় যৌতুক লোভী স্বামী ইব্রাহিম মনির প্রাই সময় অনেক মহিলার সাথে পরকীয়া সম্পর্ক থাকাই অনেক বার তাদের মধ্যে পারিবারিক সমস্যা হয়। জার জন্য সামাজিক ভাবে সালিস বিচারও হয়। এর পর শ্বাশুড়ি দাড়াও বিপাশা নির্যাতনে শিকার হয়।

গত ১৮/১০/২০১৭ ইং তারিখে দুলারহাট থানার নীলকমল ইউনিয়নের চরনুরুল আমিন গ্রামের ২ নং ওয়ার্ডের মোঃ কুট্টি মিয়া ফরাজি ছেলে ইব্রাহিম মনিরের কাছে একই ইউনিয়নের চরনুরুল আমিন গ্রামের ৬ নং ওয়ার্ডে মোঃ কামাল তালুকদারের মেয়ে বিপাশেকে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ করেন, মেয়ের সুখের কথা চিন্তা চিন্তা করে বিপাশার বাবা মোঃ কামাল তালুকদার যৌতুক লোভী জামাইকে ১ লক্ষ টাকা যৌতুক প্রদান করেন গুটি কয়েকদিন পরেই রাক্ষুসে জামাই ইব্রাহিম মনির যৌতুকের লোভ সামলাতে না পেরে পূর্নরাই যৌতুকের জন্য বিপাশাকে বিভিন্ন ভাবে চাপ প্রদান করেন,বিপাশা টাকা এনে দিতে না পারায় ২৬ শে আগস্ট ২০১৮ ইং তারিখে রক্ত চক্ষু জামাই বিপাশাকে বেধরক মারধর করে ঘড় থেকে বাহিরে পেলে দেয় পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চরফ্যাশন সদর হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে করে ডাঃ মঞ্জুরুল হাসানের অধিনে চিকিৎসা নিয়ে বাড়ীতে এনে স্থানীয় সালিশির মাধ্যমে সমাধান করেন।

একটি বছর দুজনের সাংসারিক জীবন ভালোই কাটে রক্ত চক্ষু যৌতুক লোভী স্বামী ইব্রাহিম মনির আবারও যৌতুকের লোভ লেগে স্ত্রী বিপাশাকে বিভিন্ন ভাবে কৌশল দিয়ে ৫০ হাজার টাকা যৌতুক দাবি করে স্ত্রী বিপাশা তার সুখের কথা চিন্তা করে বাবার বাড়ীতে এসে কৃষক বাবার কাছে টাকা দাবি করলে বাবা টাকা দিতে পারবে না বলে জানালে স্ত্রী স্বামীর বাড়ীতে গিয়ে স্বামীকে টাকা দিতে না পারার কথা জানালেই নেমে আসে স্ত্রীর উপর কালো ছায়া এ বছর ৫ (জুন) পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিনও যৌতুক লোভী স্বামীর অত্যাচার থেকে রেহাই পেলোনা বিপাশা ঈদের দিন আদরের ছোট বোন তাকে দেখতে তার স্বামীর বাড়ীতে গেলে বড় বোনকে রক্তাক্ত অবস্থা মাটিতে শুয়ে পরে আছে দেখতে পেয়ে বাবাকে খবর দিলে বাবা তাকে উদ্ধার করে ঈদের দিনই চরফ্যাশন সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন আর কত অত্যাচার হলে যৌতুক লোভী স্বামীর লোভ কমবে জানতে চায় জাতি।

Ad

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here