চরফ্যাশন উপজেলার মনপুরায় সংযোগ সড়ক বিচ্ছিন্ন হওয়ার আশংকা

0
252

মোঃ আবদুল রহিম হাওলাদার চরফ্যাশন উপজেলা প্রতিনিধি ভোলার বিচ্ছিন্ন দ্বীপ মনপুরা উপজেলা সদর হাজিরহাট বাজার থেকে উত্তর পাশে উত্তর চরযতিন জামে মসজিদ সংলগ্ন পাকা সংযোগ বেড়ীবাঁধ সড়কটি বিচ্ছিন্ন হওয়ার আশংকা রয়েছে।

ঘূর্ণীঝড় প্রভাবে মেঘনায় অস্বাভাবিক জোয়ার বৃদ্ধি পাওয়ায় তীব্র ঢেউয়ের আঘাতে পাকা বেড়ীবাঁধ সড়কটির মাটি সরে গেছে। সংযোগ সড়কটি বিচ্ছিন্ন হলে বন্ধ হয়ে যাবে ২টি গ্রামের যোগাযোগ ব্যাবস্থা। ফলে যোগাযোগ ব্যবস্থায় অভাবে চরম দুর্ভোগে পড়বে ২টি গ্রামের কোমলমতি স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীসহ ১০ শহস্রাধিক মানুষ।

ভাঙ্গনের কবলে পড়ে রাক্ষুসে মেঘনা ক্রমেই বেড়ীবাঁধ সংযোগ সড়কটির কাছাকাছি চলে আসে। কিন্তু গত কয়েকদিনের ঝড়-জলোচ্ছাসের কারণে মেঘনা আরও রাক্ষুসে রুপ নেয়। পাকা সংযোগ সড়কটির নীচ থেকে মাটি সরে গেছে। ভাঙ্গন অব্যাহত থাকলে ১ সপ্তাহের মধ্যেই সংযোগ সড়কটি পুরোপুরি ভেঙ্গে যাওয়ার আশংকা করা হচ্ছে।

সংযোগ সড়কটি ভেঙ্গে গেলে মেঘনার জোয়ারের পানি প্রবেশ করে চর যতিন ও সোনারচর গ্রাম প্লাবিত হবে। ২ গ্রামের ১০ সহস্রাধিক মানুষ পানিবন্ধী হয়ে পড়বে। গ্রাম প্লাবিত হলে মানুষের বসতবাড়ী ডুবে যাবে। ভেসে যাবে পুকুরের মাছ ও নষ্ট হবে আমন ধানের ফসল।

প্রতিদিন এই সড়ক দিয়ে স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসার শত শত ছাত্র-ছাত্রীরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যায়। সড়কটি বিচ্ছিন্ন হলে চরম দূর্ভোগে পড়বে ২টি গ্রামের হাজারো মানুষ। কোমল মতি শিক্ষার্থীদের যাতে পড়ালেখার কোন সমস্যা না হয় তার জন্য দ্রুত সড়কটি রক্ষার জন্য জিও ব্যাগ ফেলে সড়কটি রক্ষা করার জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করছেন এলাকার সচেতন মহল। এছাড়াও ১নং মনপুরা ইউনিয়নের বেতুয়া সুইজগেট সংলগ্ন বেড়ীবাঁধ ভাঙ্গনের হুমকির মুখে।

এব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ সহকারী প্রকৌশলী আব্দুর রহমান বলেন, এ বিষয় আমরা ইতি মধ্যে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি। চেষ্ঠা করছি দ্রুত জিও ব্যাগ ফেলে সড়কটি রক্ষা করার।

উপজেলা চেয়ারম্যান সেলিনা আকতার চৌধূরী বলেন, পাকা বেড়ীবাধঁ সড়কটি রক্ষার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রকৌশলীর সাথে আলাপ করে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহণ করবেন

Attachments area

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here