এক পরিবারের চারজনকে গলা কেটে হত্যা

0
202

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার আবদার এলাকায় ফ্ল্যাট বাড়ির দ্বিতীয় তলায় মাসহ একই পরিবারের চারজনের গলাকাটা লাশ পাওয়া গেছে। আজ বৃহস্পতিবার বিকেল পৌনে চারটায় ঘরের ভেতরে লাশ থাকার তথ্য পান স্বজনেরা। পরে বিকেল পাঁচটায় পুলিশ ও স্থানীয় সাংসদ ইকবাল হাসেন সেখানে যান।

ওই চারজন হলেন স্মৃতি আক্তার ফাতেমা (৪০), তাঁর মেয়ে নূরা আক্তার (১৫), শাওরিন আক্তার (১২) ও ছেলে ফাদিল (৫)।

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার আবদার এলাকায় ফ্ল্যাট বাড়ির দ্বিতীয় তলায় মাসহ একই পরিবারের চারজনের গলাকাটা লাশ পাওয়া গেছে। আজ বৃহস্পতিবার বিকেল পৌনে চারটায় ঘরের ভেতরে লাশ থাকার তথ্য পান স্বজনেরা। পরে বিকেল পাঁচটায় পুলিশ ও স্থানীয় সাংসদ ইকবাল হাসেন সেখানে যান।

ওই চারজন হলেন স্মৃতি আক্তার ফাতেমা (৪০), তাঁর মেয়ে নূরা আক্তার (১৫), শাওরিন আক্তার (১২) ও ছেলে ফাদিল (৫)।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও স্বজনদের কাছ থেকে জানা যায়, স্মৃতি আক্তার পার্শ্ববর্তী ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানার গোড়াবাড়ি গ্রামের মো. কাজলের স্ত্রী। কাজল প্রায় ২০ বছর ধরে মালয়েশিয়াপ্রবাসী। শ্রীপুর উপজেলার আবদার গ্রামে জমি কিনে বাড়ি করেছিলেন কাজল। তাঁর পরিবারের সদস্যরা সেই বাড়ির দ্বিতীয় তলায় বসবাস করছিলেন।

স্বজনদের কাছ থেকে আরও জানা যায়, বড় মেয়ে নুরা আক্তার স্থানীয় এইচ এ কে একাডেমিতে দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিল। শাওরিন পাশের ব্রাইট ক্যাডেট মাদ্রাসায় পড়ত। ফাদিল স্থানীয় আবদুল করিম একাডেমিতে নার্সারির ছাত্র ছিল।

প্রবাসী কাজলের ছোট ভাই মো. আরিফ বলেন, ‘আমরা সব সময় তাঁদের খোঁজখবর রাখি। আজ বিকেল পৌনে চারটার দিকে বাড়িতে এসে এসব লাশ দেখতে পাই।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে গাজীপুরের সহকারী পুলিশ সুপার (কালিয়াকৈর সার্কেল) আল মামুন  বলেন, ‘আমরা ঘটনাস্থলে এসেছি। বিস্তারিত জেনে বলা যাবে।’