একজন শিক্ষকের উদ্যোগে পরিশুদ্ধ মানুষ গড়ার লক্ষ্যে শাহজাদপুরে সৃষ্টি হলো মানবতার দেওয়াল।

0
357
 জহুরুল ইসলাম, শাহজাদপুর ( সিরাজগঞ্জ ) প্রতিনিধিঃ  
একবিংশ শতাব্দির যান্ত্রিক যাতাকলে আজ
সমাজের অধিকাংশ ক্ষেত্র থেকে আমাদের মানবিক জ্ঞান, নৈতিকতা ও মূল্যবোধ হারিয়ে যাচ্ছে। সমাজ রাষ্ট্র যেখানেই চোখ রাখিনা কেন কেবল চোখে পড়ে মানবিক বিপর্যয়। উচ্চ ডিগ্রীধারী মানুষের মধ্যেও এই অমানবিক প্রবৃত্তি প্রকট আকার ধারণ করেছে। আমাদের সমাজে শিক্ষিত মানুষের হার বাড়লেও মানবিক গুণাবলি সম্পন্ন মানুষের হার খুবই কম। অথচ নৈতিক ও মানবিক গুণাবলী ছাড়া সমাজ তথা জাতির সামগ্রিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। নতুন প্রজন্মের মধ্যে সেবাধর্মী মনোভাব তৈরি করে হারিয়ে যাওয়া নৈতিক মূল্যবোধ জাগিয়ে তোলা এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। এমন বিপর্যস্ত সময়ে আশার আলোর মত  ‘ আলোকবর্তিকা’  নিয়ে শিশু কিশোরদের পাশে দাঁড়ালেন  সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর সরকারি মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোছাঃ সুমনা আক্তার শিমু। শিশু কিশোরদের চোখে স্বপ্ন বুনে দিতে, মানবিক গুণাবলি হৃদয়ে রোপন করতে তিনি গড়ে তুলেছেন ” আলোকবর্তিকা ” নামের একটি সামাজিক সংগঠন। আর এই সংগঠনের ব্যানারে প্রথমেই তিনি সৃষ্টি করেছেন মানবতার দেওয়াল। সমাজের সুবিধা বঞ্চিত মানুষ যেন এখান থেকে তাদের প্রয়োজনীয় কাপড়চোপড় নিয়ে পড়তে পারে এবং সমাজের বিত্তবানেরা যেন তাদের অপ্রয়োজনীয় কাপড়চোপড় রেখে যায় এখানে সেই উদ্দেশ্যেই নির্মান করা হয়েছে মানবতার দেওয়াল।
সরেজমিনে দেখা যায় শাহজাদপুর সরকারি মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের মেইন গেটের সামনে দেয়ালের সাথে হ্যাঙ্গারে বিভিন্ন ধরনের পোশাক ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। সেখান থেকে বিদ্যালয়ের কিছু শিক্ষার্থী তাদের প্রয়োজনীয় পোশাক নিয়ে ব্যবহার করছে। বিদ্যালয়ের কিছু অভিভাবক ও শিক্ষার্থী ওই দেয়ালে পোশাক রেখে যাচ্ছে। সুবিধাবঞ্চিত ও অভাবগ্রস্ত শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে স্কুল ড্রেস ও পরিধেয় কাপড় সরবরাহের জন্য এই বিদ্যালয়ের শিক্ষক সুমনা আক্তার শিমু এমন উদ্যোগ নিয়েছেন।
গতকাল সোমবার দুপুরে উপজেলার  শাহজাদপুর সরকারি মডেল পাইলট উচ্চ  বিদ্যালয়ে ‘যা আপনার  প্রয়োজন নেই তা দিয়ে যান’, ‘যা আপনার প্রয়োজন তা নিয়ে যান’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে উদ্বোধন করা হয়েছে ‘মানবতার দেয়াল’ নামে একটি দেয়াল। এ দেয়ালটির উদ্বোধন করেন শাহজাদপুর সরকারি মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ সাইফুল ইসলাম।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন , শাহজাদপুর সরকারি মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকমণ্ডলী, সাংবাদিক, অভিভাবকবৃন্দ এবং বিভিন্ন  সামাজিক- সাংস্কৃতিক  সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও মানবতার দেয়ালের উদ্যোক্তা মোছাঃ সুমনা আক্তার শিমু  বলেন, বিদ্যালয়ের ধনী পরিবারের অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা নতুন ও তাদের অব্যবহৃত পুরাতন স্কুল ড্রেস ও পরিধেয় কাপড় এই দেয়ালে টাঙিয়ে রাখবে। বিদ্যালয়ের যে শিক্ষার্থীদের কাপড় প্রয়োজন ওই দেওয়াল থেকে তারা নিয়ে ব্যবহার করবে। সুবিধা বঞ্চিত ও অভাবগ্রস্ত শিক্ষার্থীদের স্কুল ড্রেস ও পরিধেয় কাপড় যোগান দিতেই এটি চালু করা হয়েছে। মানবতার এই দেয়ালটি সবসময়ই চালু থাকবে বলে তিনি জানান। তিনি আরও জানান, বর্তমান সময়ে মানুষের সবচেয়ে বড় সংকট মানবিক বিপর্যয়। এ সংকট থেকে উত্তরণের  জন্য কোমলপ্রাণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে মানবিক বোধ সৃষ্টি করাই ‘ আলোকবর্তিকার ‘ প্রধান উদ্দেশ্য। সেই সাথে শিক্ষার্থীদের মধ্যে লুকিয়ে থাকা সুপ্ত প্রতিভাগুলো যেন প্রস্ফুটিত হতে পারে সেই সুযোগ করে দিয়ে পরিশুদ্ধ মানুষ গঠণের লক্ষ্যেই সংগঠণটি সৃষ্টি করা হয়েছে।
এদিকে সংগঠনটির মহৎ উদ্দেশ্যগুলোকে স্বাগতম জানিয়ে বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, অভিভাবকবৃন্দ এবং সচেতনমহল সংগঠণটির উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করেন। #

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here