আত্রাই সাহেব গঞ্জ কাঁচা বাজার হেলীপ্যাড মাঠে স্থানান্তর

0
86

কামাল উদ্দিন টগর, নওগাঁ প্রতিনিধিঃ- সারা বিশ্বের মত বাংলাদেশেও করোনা ভাইরাস( কোভিড-১৯) ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে এমন পরিস্থিতিতে নওগাঁর আত্রাইয়ে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে সকলের মাঝে জনসচেতনতা সৃষ্টিসহ উপজেলা পরিষদ, উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন সহ বিভিন্ন সামাজিক প্রতিষ্ঠান নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে, এরই ধারাবাহিকতায় জনসমাগম এড়াতে উপজেলা পরিষদ, উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ত্রি-পক্ষীয় একাধীক বৈঠকের মাধ্যমে সামাজিক নিরাপত্তা মেনে বাজারের সকল পাইকারী-খুচরা কাঁচা বাজার,মাছ বাজার , মাংশ,দুধটি অন্যত্র স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।তবে মুরগী দোকান এখনও সরানো হয়নি। ফলে অনেক ব্যবসায়ীদের মাঝে চরম ক্ষোভদেখা দিয়েছে। গত এক সপ্তাহ আগে ওই সিদ্ধান্ত নেবার পরে গত বৃহস্পতিবার থেকে সাহেগঞ্জ বাজার থেকে কাঁচা বাজার এবং মাছ বাজারটি উপজেলা হেলীপ্যাড স্থানান্তর করা হয়েছে। মাঠের এক পাশে সামাজিম নিরাপত্তা মেনে বিক্রি হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের সবজী, অপর পাশে বিক্রি হচ্ছে মাছ ও দুধ। সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত কেনা বেচা চলে। স্থানীয় প্রশাসনের এই সিদ্দানÍ বাস্তবায়ন হবার পরে পুরো এলাকাতেই লোকজনের সমাগম অনেক কমে গেছে। তবে সবজীসহ বিভিন্ন সমল্লা ডাল, মাছ ও চালের দাম বেড়ে গেছে কয়েকগুন। এক শ্রেনীর অসাধু ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট তৈরি করে রাতারাতি চাল,ডাল সিগারেট,চিনি,ভূষির দাম বাড়িয়ে বিক্রি করছে।আত্রাই উপজেলা হেলীপ্যাড মাঠে বাজার পরিদর্শনে যান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এবাদুর রহমান এবাদ। এ সময় তিনি বাজারের বিভিন্ন দোকান গুলো ঘুরে ঘুলে দেখেনএবং ব্যবসায়ীদের খোঁজ খবর নেন। তিনি ব্যবসায়ীদের উদ্দের্শে বলেন, বর্তমানে সাড়া বিশ্বে করোন ভাইরাস পরিস্থিতিতে আমরা সকলেই উদ্বিগ্ন। তার পরেও সরকারী নির্দেশনা আমাদের সকলকেই মেনে চলতে হবে। ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা নির্ভয়ে ব্যবসা পরিচালনা করবেন।আমরা আপনাদের নিরাপত্তা দেবএবং আমরা আপনাদের পামে সব সময় আছি।
আত্রাই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোসলেম উদ্দিন জানান, মরণঘাতী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সাহেবগঞ্জ কাঁচা বাজারটি স্থানান্তর করা হয়েছে। এ সময় তিনি ব্যবসায়ীদের করোনা ভাইরাসের সংক্রামনের হাত থেকে নিরাপদে থাকার জন্য বিভিন্ন পরামর্শ দেন। এদিকে কাঁচা মালা মালবাজার ঘুরে দেখেন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ব্যবসায়ীরা কেনা বেচা করছে। চারি দিকে ক্রেতা –বিক্রেতাদের হাঁকডাক।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছানাউল ইসলাম জানান, বাজারে ব্যবসায়ীদের যাতে কোন রকম সমস্যা না হয় তার জন্য সার্বক্ষণিক বাজার মনিটরিং তৎপর চালানো হচ্ছে। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য ইতো মধ্যে সকল প্রকার মাইকিং প্রচার- প্রচারনা এবং মোবাইল কোর্ট সার্বক্ষণিক মনিটরিং করছে। নতুন বাজারে কাঁচা মাল ব্যবসায়ী আব্দুর রাজ্জাক সরদার, জামাল উদ্দিন, বাবু সরদার, আইয়ূব আলী ফৌজদার, আনোয়ারুল আনার জানান, নতুন বাজারে বাজারে কাঁচামাল আমদানি ওকেনা-বেচা ভালই হচ্ছে। তবে পরিস্থিতি ভাল হলে বাজারটি আরো জমজমাট হবে।
এলাকার অভিজ্ঞ মহল ও সুশিল সমাজের প্রতিনিধিগন সাংবাদিকদের জানান,বর্তমানে করোনা ভাইরা পরিস্থিতিতে লোকসমাগম ঠেকাতে এবং যানজট কমাতে স্থানীয় প্রশাসনের প্রশংসনীয় এমন সিদ্ধান্ত কে তারা ধন্যবাদ জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here